প্রয়াত মঞ্চ তথা চলচ্চিত্রের দাপুটে অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত ,শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: প্রয়াত হলেন বাংলা মঞ্চ তথা চলচ্চিত্রের দাপুটে অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত । গত মাসেই একাত্তর পূর্ণ করেছিলেন তিনি। বুধবার ১৬ জুন কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তাঁর অভিনয় দক্ষতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। থিয়েটার আর্টিস্ট থেকে পর্দার দাপুটে অভিনেত্রী স্বাতীলেখা। ১৯৭০-এর শুরুর দিকে ইলাহাবাদে এ. সি. বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশনার অধীনে স্বাতীলেখা থিয়েটারে কাজ শুরু করেন। ১৯৭৮ সালে তিনি কলকাতায় চলে আসেন এবং নান্দীকার নাট্যদলে যোগদান করেন। নান্দীকারে রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্তের নির্দেশনায় তিনি কাজ করতে থাকেন। ১৯৮৪ সালে সত্যজিৎ রায় নির্দেশিত ‘ঘরে বাইরে’ ছবিতে ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায় ও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সাথে তিনি মুখ্য নারী চরিত্রে অভিনয় করেন। পরে অবশ্য দীর্ঘদিন পর্দায় দেখা যায়নি তাকে ।

শোকপ্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন,” বিশিষ্ট অভিনেত্রী স্বাতীলেখা সেনগুপ্তের প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ কলকাতায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। থিয়েটারে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু। সত্যজিৎ রায়ের ‘ঘরে বাইরে’ ছবিতে তাঁর অভিনয় দর্শক চিরদিন মনে রাখবেন।”

দীর্ঘ ৩১ বছর পর সৌমিত্রর সঙ্গে তাঁর বড় পর্দায় ফেরা ‘বেলা শেষে’ ছবির মাধ্যমে, যা দাগ কেটে গিয়েছিল দর্শকমনে। বক্স অফিসে রেকর্ড গড়েছিল এই ছবি। সৌমিত্র-স্বাতীলেখাকে ফের দেখা যেত পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা রায়ের ছবি ‘বেলাশুরু’-তে।কিন্তু করোনার জন্য পিছিয়ে যায় ছবি মুক্তি। এদিকে ২০২০ সালে করোনায় প্রয়াত হন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ও। এদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে এখনও প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়নি ‘বেলাশুরু’। ছবি মুক্তির আগেই চিরবিদায় নিলেন অভিনেত্রী। তাঁর মৃত্যুতে সিনে দুনিয়ায় শোকের ছায়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.