ইস্তফা দিচ্ছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: ক্রিকেটের জন্যেই বিশ্বজোড়া জনপ্রিয়তা পেলেও সৌরভ গাঙ্গুলির প্রথম প্রেম ফুটবল। ফুটবলের প্রতি প্রেমের কারণেই শহরের অন্যতম প্রধান ক্লাব মোহনবাগানের সঙ্গে জুড়েছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক ও বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ। এবার সেই মোহনবাগানের বোর্ড অফ ডিরেক্টরের সমস্ত পদ থেকে ইস্তফা দিতে হচ্ছে সৌরভ গাঙ্গুলিকে। মূলত তাঁর বিরুদ্ধে স্বার্থের সঙ্ঘাতের অভিযোগ ওঠায় এই সিদ্ধান্ত তিনি নিয়েছেন বলে খবর।

আরপিএসজি গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান সঞ্জীব গোয়েঙ্কা সম্প্রতি আইপিএলে লখনউয়ের দল কিনেছেন। অন্য দিকে সৌরভ এখন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি। তাই সৌরভের পক্ষে সঞ্জীবেরই কোনও দলের সঙ্গে যুক্ত থাকা মানে স্বার্থের সঙ্ঘাত তৈরি হওয়া। অর্থাৎ, যিনি বিসিসিআই সভাপতি, তাঁর অধীনেই আইপিএলে খেলবে সঞ্জীবের ফ্র্যাঞ্চাইজি। আবার সঞ্জীবেরই মালিকানাধীন দলের বোর্ডে থাকবেন সৌরভ, তা হয় না। তেমন হলে তা স্বার্থের সঙ্ঘাতের সবচেয়ে বড় উদাহরণ হিসাবে প্রতিফলিত হবে। তাই গোটা বিষয়ে ‘স্বচ্ছতা’ বজায় রাখতে সৌরভ এই পদক্ষেপ করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

গত বছর জেএসডব্লিউ সিমেন্টের ব্র্যান্ড এম্বাসাডর হিসাবে ইনস্টাগ্রামে বাণিজ্যিক পোস্ট করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন সৌরভ। বোর্ড সভাপতি থাকাকালীনই দিল্লি ক্যাপিটালসের মালিক জেএসডব্লিউ-এর বিজ্ঞাপনী প্রচার কীভাবে করতে পারেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। তার আগে দিল্লি ক্যাপিটালসের মেন্টর পদেও ছিলেন মহারাজ। যদিও সেই সময় তাঁর যুক্তি ছিল, বোর্ডের সভাপতি এবং জেএসডব্লিউ-য়ের ব্যান্ড এম্বাসাডর হিসেবে তাঁর দায়িত্ব সংঘাতপূর্ণ নয়।

এখন দেখার তিনি দলের পদ ছেড়ে দেওয়ায় এটিকে মোহনবাগানের সমর্থকদের উপর তার কোনও প্রভাব পড়বে কি না। এটাও দেখার যে, সৌরভের অনুপস্থিতিতে ক্লাবের ‘ব্র্যান্ড ইকুইটি’ কোনও ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় কি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.