প্রসূতি মায়ের মৃত্যু ঘিরে ধুন্ধুমার বগুলা রুরাল হাসপাতাল চত্বর

হাঁসখালী,নদীয়া: ফের একবার প্রসূতি মায়ের মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য নদিয়ায়। কৃষ্ণনগরের পর এবার বগুলায়। শুক্রবার প্রসূতি মায়ের মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভ নদিয়ার হাঁসখালি থানার বগুলা রুরাল হসপিটালে।

জানা গিয়েছে লিপিকা বিশ্বাস নামে ছাব্বিশ বছরের এক গৃহবধূকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে ভর্তি হয় ঐ প্রসূতি । প্রসব যন্ত্রণা ওঠায় কর্মরত ডাক্তারবাবু তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। অ্যানাস্থেশিয়া করার পর ইঞ্জেকশন দেওয়া হয় ওই প্রসূতিকে। তারপরই তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে।

তৎক্ষণাৎ তড়িঘড়ি ডাক্তারবাবুরা ওই প্রসূতি মাকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে। তবে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময়ই পথে মৃত্যু হয় ঐ প্রসূতির।

এরপর রোগীর পরিজন যখন জানতে পারে মৃত্যুর খবর তখন ক্ষোভে বগুলা হসপিটালে ঘেরাও করে এবং ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হয়েছে বলে তারা দাবি করে দীর্ঘক্ষণ ধরে বিক্ষোভ দেখায়। মৃত লিপিকা বিশ্বাসের আত্মীয় পরিজনেরা হাসপাতালের সামনে বিক্ষোভ করতে থাকে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাঁসখালী থানার পুলিশ গিয়ে বিক্ষোভ তুলে দেয় । জানা যায় লিপিকা বিশ্বাসের বাড়ি ভায়না পূর্বপাড়ায় তাঁর বাবার নাম রামচন্দ্র বিশ্বাস, স্বামীর নাম তাপস বিশ্বাস। তার বিয়ে হয় হাঁসখালি থানার বেনালি গ্রামে । লিপিকার আত্মীয় পরিজনের অভিযোগ ভুল চিকিৎসায় মারা গেছে লিপিকা। তাকে ভুল ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে তার পরে তার অবস্থার অবনতি হয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাঁসখালি থানার পুলিশ।।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.