করোনা আবহে কীভাবে করানো যাবে পরীক্ষাগুলি?রাজ্য গুলির থেকে মত চাইলো কেন্দ্র

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: করোনা আবহে মূল চিন্তা হয়ে দাঁড়িয়েছে দেশজুড়ে বিভিন্ন শিক্ষাবোর্ড এবং রাজ্য বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা সংগঠিত করার বিষয়টি। এর মধ্যেই দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা যাতে বাতিল না করে পরে নেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়, সেই আরজি জানিয়ে চিঠি দিয়ে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী নিশঙ্ককে অনুরোধ করা হয়েছে সিবিএসই বোর্ডের পক্ষ থেকে । কী হবে বোর্ডগুলির উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ভবিষ্যৎ? আজকের বৈঠকেও বের করা গেল না কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ।

রবিবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের নেতৃ8ত্বে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক দেশের সমস্ত রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী এবং শিক্ষাসচিবদের সঙ্গে ভারচুয়াল বৈঠক করলেন। বৈঠকে তিনি রাজ্য গুলিকে পরীক্ষার বিষয়ে লিখিত জমা দিতে আর্জি জানান । পরবর্তী বৈঠক অর্থাৎ ৩০ মে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্র । রবিবারের বৈঠকে কিছু রাজ্য তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন । দিল্লি, মহারাষ্ট্র সরকারের দাবি, অন্তবর্তী মূল্যায়নের মাধ্যমেই এবারের পরীক্ষার ফলপ্রকাশ হোক। বরং ১৭-১৮ বছর বয়সি পড়ুয়াদের আগে টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হোক। অন্যদিকে কিছু রাজ্য আপাতত এখন পরীক্ষা স্থগিত রাখার আবেদন করেন ।

কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজয়গুলিকে দুটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। প্রথমত,পড়ুয়ারা নির্দিষ্ট কয়েকটি বিষয়ের মধ্যেই পরীক্ষা দিক। যা কিনা নেওয়া হবে পুরনো পরীক্ষার নিয়ম মেনেই। আর দ্বিতীয়ত, ছাত্র-ছাত্রীরা প্রধান বিষয়গুলির পরীক্ষা নিজের স্কুলে তিন ঘণ্টার পরিবর্তে দেড় ঘণ্টায় পরীক্ষা দেবেন। সেক্ষেত্রে প্রশ্নপত্র হবে শুধুমাত্র ‘অবজেকটিভ’ বা MCQ অর্থাৎ ছোট প্রশ্নের উপরই। তবে এখনও পর্যন্ত কোনো রাজ্যই তাদের কোনো সিদ্ধান্ত জানাননি । সূত্রের খবর ,আগামী জুলাইয়ে নেওয়া হতে পারে পরীক্ষা । আবার পরীক্ষা পিছিয়েও দেওয়া হতে পারে ।

এদিকে, এদিন পশ্চিমবঙ্গের পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী বাত্য বসু বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না। তবে ছিলেন শিক্ষাসচিব মনীশ জৈন। রাজ্যও জানিয়েছে, তাঁরাও দ্বাদশের পরীক্ষা নেওয়ারই পক্ষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.