শান্তিপুর উপনির্বাচনের আগে পঞ্চায়েত মেম্বার সহ শতাধিক বিজেপি কর্মী বিজেপি ছেড়ে যোগ দিলো তৃণমূলে

নদীয়া,শান্তিপুর: উপনির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে আসছে ততোই বাড়ছে বিজেপিতে ভাঙ্গন। এবার বিজেপির পঞ্চায়েত মেম্বার সহ শতাধিক বিজেপি কর্মী বিজেপি ছেড়ে যোগ দিলো তৃণমূলে। বৃহস্পতিবার নদিয়ার শান্তিপুর হরিপুর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত মেলের মাঠ গ্রামে তৃণমূলের এক নির্বাচনী কর্মীসভায় নদিয়া দক্ষিণে তৃণমূল সভাপতি রত্না ঘোষ করের হাত থেকে তৃণমূলের দলীয় পতাকা তুলে নিলেন হরিপুর পঞ্চায়েতের মেলের মাঠ গ্রামের বিজেপির পঞ্চায়েত মেম্বার অর্পিতা ভাওয়াল।

এছাড়াও মেলের মাঠ গ্রামের প্রায় শতাধিক বিজেপি কর্মী বিজেপি ছেড়ে যোগ দিলো তৃণমূলে। এদিন বিজেপির পঞ্চায়েত মেম্বার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরে বলেন, গত তিন বছর ধরে বিজেপির পঞ্চায়েত মেম্বার থাকা সত্ত্বেও কোন কাজ করতে পারছিলেন না তিনি সেই কারণেই তার এই দলবদল করার সিদ্ধান্ত।

যোগদান পর্বের শেষে নদীয়া দক্ষিণের তৃণমূল সভাপতি রত্না ঘোষ কর জানান, যারা বিজেপির প্রতি আস্থা রাখতে না পেরে তৃণমূলে যোগদান করছে তাদের প্রত্যেককেই স্বাগত জানাই।

সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান কারী বর্তমান তৃণমূল নেতা বিপ্লব কর বলেন, গত বিধানসভা ভোটে দিনরাত এক করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করেছি। শান্তিপুর বিধানসভায় বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারকে শান্তিপুর বাসি দুই হাত তুলে আশীর্বাদ করেছিল। শান্তিপুর বাসীর সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে জগন্নাথ সরকার। তাই বিশ্বাসঘাতকদের সাথে দলে থেকে কাজ করতে পারব না বলেই বিজেপি ছেড়ে আমিও তৃণমূলে যোগদান করেছি। আমার মত প্রচুর বিজেপি কর্মী রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত যোগাযোগ করছে তৃণমূলে যোগদান করবে বলে।

এ দিন তৃনমূলের যোগদান পর্ব চলাকালীন উপস্থিত ছিলেন নদীয়া জেলাপরিষদের সভাধিপতি রিক্তা কুন্ডু, হরিপুর পঞ্চায়েতের প্রধান সভা সরকার, নদীয়ার দক্ষিণে তৃণমূল সভাপতি রত্না ঘোষ কর সহ তৃণমূলের একাধিক শীর্ষ নেতৃত্ব। তবে উপ নির্বাচনের আগে বিজেপিতে একের পর এক ভাঙ্গন নিয়ে শান্তিপুর বিধানসভার উপনির্বাচনের ক্ষেত্রে কোণঠাসা হতে চলেছে বিজেপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.