ফুসফুস প্রতিস্থাপনে গ্রীন করিডোর করে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে চেন্নাই নিয়ে যাওয়া হল মুকুল রায়ের স্ত্রীকে

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরেই অসুস্থ মুকুল রায়ের স্ত্রী কৃষ্ণা রায়। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন করোনার কারনে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কৃষ্ণা রায়ের ফুসফুস। ফুসফুস প্রতিস্থাপনের জন্য মুকুল রায়ের স্ত্রীকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে চেন্নাই নিয়ে যাওয়া হল বৃহস্পতিবার । আবহাওয়া খারাপের জন্য বুধবার সম্ভব হয়নি ।

এদিন সকাল ৭টা ৪০ নাগাদ গ্রিন করিডর করে হাসপাতাল থেকে দমদম বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয় কৃষ্ণা রায়কে। আপাতত একমো সাপোর্টে রয়েছেন তিনি। তাঁকে এক মুহূর্ত অক্সিজেন ছাড়া রাখা সম্ভব নয়, এ কথা আগেই জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। সেই কারণেই মুকুল পত্নীর সঙ্গে অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের টিম রাখা হয়েছে।

বেশ কিছুদিন আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে বাইপাসের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন মুকুল রায়ের স্ত্রী কৃষ্ণা রায়। প্রথমদিকে অবস্থা স্থিতিশীল থাকলেও ধীরে ধীরে অবস্থার অবনতি হয়। আপাতত অত্যন্ত সংকটজনক অবস্থা কৃষ্ণা রায়ের। এদিকে ইতিমধ্যেই চেন্নাই থেকে দুজন চিকিৎসক এসে কৃষ্ণা দেবীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেছেন। এর পরেই তারা জানিয়েছেন মুকুল পত্নীর ফুসফুসের অবস্থা ভালো নয় তা প্রতিস্থাপন করতে হবে।সেক্ষেত্রে অঙ্গদাতা প্রয়োজন। ব্রেন ডেথ হয়েছে এমন কারও অঙ্গ পেতে গেলে তার জন্য রিজিওনাল অর্গান অ্যান্ড টিস্যু ট্রান্সপ্লান্ট অর্গানাইজেশনে নাম নথিভুক্ত করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.