কন্যা সন্তান হওয়ায় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন, ৯ মাসের শিশু কন্যা নিয়ে প্রাণভয়ে ঘরছাড়া গৃহবধূ

নদীয়া: কন্যা সন্তান হওয়ায় শারীরিক নির্যাতন করে প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টার অভিযোগ,৯ মাসের শিশু কন্যা নিয়ে ঘরছাড়া গৃহবধূ। ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার শান্তিপুর থানার ফুলিয়া এলাকায়। জানা যায় শান্তিপুর থানার গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রমোদ পল্লী এলাকায় এক যুবতীর সঙ্গে ওই এলাকারই এক যুবকের গত আড়াই বছর আগে বিয়ে হয়।

গৃহবধূর অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই তার শশুর শাশুড়ী এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তার উপর শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন চালাত। নয় মাস আগে তার কন্যা সন্তান হওয়ার পর অত্যাচারের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। স্বামী প্রতিবাদ করার চেষ্টা করলে তাকেও মারধরের চেষ্টা করত বলে স্বামী নিরুপায় ছিল। গৃহবধূ অভিযোগ করেন তার কন্যা সন্তান হওয়ার কারণে তার শশুর শাশুড়ী এবং তার ননদ তাকে আরো বেশি মারধর করতো। প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছে কয়েক বার। বর্তমানে স্বামী কাজের সুত্রে বাইরে থাকার কারণে অবশেষে প্রাণভয় শ্বশুর বাড়ি ছেড়ে বাবার বাড়িতে এসে ঠাঁই নিয়েছে ওই গৃহবধূ। অবশেষে শান্তিপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই গৃহবধূ।

শুধু তাই নয় গৃহবধূর অভিযোগ তার বাবার বাড়ি এসেও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে তার শশুর শাশুড়ি। গৃহবধূ চাইছেন অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করুক। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.