করোনা এবং ওমিক্রনকে নিয়ে বিশেষ সচেতনতায় পুলিশি তৎপরতা সারা নদীয়া জেলাজুড়ে

নদীয়া: পূর্বের করোনা সম্পূর্ণরূপে সামাল দেওয়ার আগেই এ রাজ্যে আবারো করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট ওমিক্রন থাবা বসিয়েছে। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী থেকে দেশের প্রায় প্রত্যেক রাজ্যকেই বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। শনিবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও, দুয়ারে সরকার সহ বেশ কিছু সরকারি অনুষ্ঠান বাতিল করেছেন।

আসন্ন পৌর নির্বাচন উপলক্ষে সমস্ত রকম কর্মীসভা বাতিল হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে বিভিন্ন দলীয় সূত্রে। সদ্য সমাপ্ত বড়দিন এবং নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর চলতি পিকনিকের মরশুমে শিকেয় উঠেছে স্বাস্থ্যবিধি। যদিও একাংশ সাধারণ মানুষের দাবি, নিয়মিত প্রশাসনিক টহলদারি না থাকার ফলেই, এই ঢিলেমি।

যদিও প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে সাধারণ মানুষের সচেতনতা দায়িত্ব তাদের নিজেদের রাখা উচিত। এ বিষয়ে অতি তৎপর হলেও অতীতে সমালোচিত হতে হয়েছে প্রশাসনকেই। তবে রবিবার কৃষ্ণনগর প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ প্রচার অভিযান চালানো হয় ওমিক্রন সচেতনতা বৃদ্ধিতে। ওমিক্রণ এর প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে মাস্ক পরিধান এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হয় প্রচার অভিযান থেকে। তবে এদিন কাউকে গ্রেপ্তার না হলেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অনেকেই নিয়ে যাওয়া হয় থানায়।

অন্যদিকে নাকাশিপাড়ায় আজ চলবে প্রচারাভিযান কাল থেকে ধরপাকড় শুরু হবে বলেই জানা গেছে বিশেষ সূত্রে। রবিবার রানাঘাট চাকদা এবং শান্তিপুর থানার পক্ষ থেকেও এ ধরনের প্রচার অভিযান লক্ষ্য করা গেছে শান্তিপুর শহর এবং ব্লকের বিভিন্ন জায়গায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.