জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: প্রায় ৮ মাস পর ফের একবার তৃনমুলে প্রত্যাবর্তন করলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলে ফিরলেন তিনি। তাঁকে পুনরায় দলে স্বাগত জানালেন দলের সেকেন্ড ইন কমান্ড। পুরোনো দলে ফিরে নিজের ভুল স্বীকার করলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবিবার তৃণমূলে যোগ দিয়েই রাজীব বলেন, “জেদের বশে বিজেপিতে গিয়েছিলাম।  অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আধ ঘণ্টা বুঝিয়েছিলেন। কিন্তু শুনিনি। ভুল করেছিলাম। আমি লজ্জিত, অনুতপ্ত। আমি দুয়ারে সরকার ও স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের সমালোচনা করেছিলাম। ভেবেছিলাম হয়ত শুধু ভোটের জন্য এই প্রকল্প। কিন্তু আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমাণ করে দিয়েছেন যে আমি ভুল ছিলাম। ভোটের পরেও দুয়ারে সরকার ও স্বাস্থ্যসাথী কার্ড চলছে।”

এর পাশাপাশি রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভারতের মা। দেবীরূপে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। এ কথা বলতে কোনও দ্বিধা নেই। তাঁকে চিনতে আমার ভুল হয়েছিল। কিন্তু, তাঁর কাছে আমি কৃতজ্ঞ। এখানে এসে BJP মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রকল্পগুলিকে নকল করে নিজেদের রাজ্যে রোল মডেল করতে চেয়েছে। এই যে ত্রিপুরা, এখানে কোনও গণতন্ত্র নেই। সন্ত্রাস এমন জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে, মানুষ হারে হারে টের পাচ্ছে। মুখে ভয়ে বলতে পারছেন না মানুষ।’

একুশের নির্বাচনে বিজেপির ব্যর্থতার পর গেরুয়া শিবির ছেড়ে একাধিক নেতা শাসক দলে ফিরেছেন। সেই তালিকায় এবার নাম লেখালেন রাজীব (Rajib Banerjee)। রাজীববাবু শুক্রবার গিয়েছিলেন আগরতলায়। তবে প্রকাশ্যে আসেননি। দেখাও যায়নি। তবে রাজনৈতিক সূত্র মারফত জানা গিয়েছিল, রবিবার আগরতলার সভাতেই তৃণমূলে যোগ দেবেন প্রাক্তন বনমন্ত্রী। কারণ হিসেবে জানা গিয়েছিল, যেহেতু ত্রিপুরার গত ভোটেও রাজীব তৃণমূলের (TMC) প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন, তাই আগরতলার মাটিতেই তিনি অভিষেকের হাত ধরে ফের তৃণমূলে ফিরতে চান। 

উল্লেখ্য, বিধানসভা ভোটের মাসকয়েক আগে, ২০২১-এর ২৯ জানুয়ারি তৃণমূল ছাড়েন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ওইদিন হাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নিয়ে বিধানসভা থেকে বেরিয়েছিলেন তিনি। তার আগে ২২ জানুয়ারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভা ইস্তফা দেন ডোমজুড়ের প্রাক্তন বিধায়ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.