বুধে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্তে সাক্ষাৎ শুভেন্দুর,তবে কী বড়সড় রদবদল ঘটতে চলেছে বাংলার রাজনীতিতে!

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: দিল্লিতে আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী । মঙ্গলবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি সভাপতি জেপি নাড্ডার সাথে দেখা করেছেন তিনি । অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক শেষে শুভেন্দু জানান,”বাংলা নিয়ে আমাদের মধ্যে কথা হয়েছে।ওনার আশীর্বাদ চেয়েছি । উনি বাংলার পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন । তবে আদতে আজ কী বিষয় নিয়ে বৈঠক তা এখনও জানা যায়নি ।

শুভেন্দু অধিকারীর রাতারাতি দিল্লিতে তলব নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা চড়তে থাকে। সোমবার বিকালের পর সিদ্ধান্ত হয় আর তারপরই শুভেন্দু অধিকারীকে তলব। রাত ১১টা নাগাদ পৌঁছন শুভেন্দু। সকালে গুজরাটে নেতা নরেন্দ্র মোদীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ মনসুভ মণ্ডাভিয়ার সঙ্গে দেখা করেন শুভেন্দু। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, এই সাক্ষাৎ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। এটা নেহাতই কোনও সৌজন্য সাক্ষাৎ নয়। কারণ এই গোটা আবহে মনসুভ মাণ্ডাভিয়ার উপস্থিতি বিশেষ ইঙ্গিতপূর্ণ।

এদিকে ওইদিনই রাজ্য বিজেপিতে বৈঠক হয় । সেখানে উপস্থিত ছিলেন সদ্য ঘটে যাওয়া বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী ও পরাজিত প্রার্থীরা । কিন্তু ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না মুকুল রায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় । একইসাথে ছিলেন না শুভেন্দুও । এর মাঝেই রাজীবের একটি ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে ।

বাংলা থেকে একমাত্র বিজেপি নেতা হিসাবে শুভেন্দুই দিল্লি গিয়েছেন। অন্য কোনও বিজেপি নেতা দিল্লি যাননি। স্বাভাবিক ভাবেই রাজ্যের বিরোধী দলনেতার দিল্লিতে বৈঠক গুলি ঘিরে জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে। তবে শুভেন্দুর এই বৈঠক ঘিরে বিভিন্ন তত্ত্ব সামনে এসেছে। কোথাও বলা হচ্ছে, রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে অভিযোগ জানাতে গিয়েছেন তিনি। আবার কোথাও বলা হচ্ছে, একমাত্র শুভেন্দুকে দিল্লি নিয়ে আসা মানে কোনও বড় সাংগঠনিক রদবদল হতে পারে রাজ্য রাজনীতিতে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.