কৃষ্ণনগরে জগদ্ধাত্রী প্রতীকী বিসর্জনের অনুমতি দিল কলকাতা হাইকোর্ট, অনুমতি নিতে হবে প্রশাসনের কাছ থেকে

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: জগদ্ধাত্রীর বিসর্জনে শোভাযাত্রা নয়, প্রতীকী বিসর্জনের অনুমতি দিল কলকাতা হাইকোর্ট। কৃষ্ণনগরে কাঁধে করে ঠাকুর বিসর্জনের বিষয়টি ঠিক কী হবে, তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়টি প্রশাসনের উপরেই ছাড়ল কলকাতা হাই কোর্ট। এদিন এক জনস্বার্থ মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দেয় হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে।

হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী চারদিন ধরে রাতভর কৃষ্ণনগরে জগদ্ধাত্রী পুজোয় আলোর খেলা দেখার সুযোগ থাকলেও, অন্যান্য বছরের মতো বিসর্জনের শোভাযাত্রায় অংশ নিতে পারবেন না দর্শনার্থীরা।

আদালতের তরফ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কাঁধে করে ঠাকুর বিসর্জনের যে প্রথা দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসছে, এ বছর সেটি করা যাবে না। কারণ, ওই প্রথায় হাজার হাজার লোকের জমায়েত হয়, ছোট গলির মধ্যে ঢুকে পড়েন অসংখ্য মানুষ। কোভিড পরিস্থিতিতে পুরো বিষয়টি এ ভাবে পরিচালনা করা সম্ভব নয়। সেই কারণেই এ বছর বিসর্জন হবে প্রতীকী। অর্থাৎ পুরো বিষয়টি অল্প আয়োজনে সারতে হবে। তবে সে ক্ষেত্রে অনুমতির বিষয়টি খতিয়ে দেখবে প্রশাসন।

কৃষ্ণনগরে জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri Puja) পুজোর ভাসান নিয়ে হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করা হয়। এর পর পুরোনো ঐতিহ্য ধরে রাখার দাবিতে কৃষ্ণনগরে জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হয়। আর এই অবরোধের মাঝে আটকে পড়ায় অ্যাম্বুল্যান্সের মধ্যে বেঘোরে প্রাণ হারায় মালদহের বছর সাতের শিশু। এই মর্মান্তিক ঘটনাকে সামনে রেখে জনস্বার্থ মামলা (PIL) দায়ের করা হয় কলকাতা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের ডিভিশন বেঞ্চে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.