Malda:প্রতিশ্রুতি মত চাকরি না মেলায় মুখ্যমন্ত্রী জেলায় থাকার সময় ধর্নায় বসলেন মৃত শ্রমিকদের পরিবার

নদীয়া নিউজ ২৪ ডিজিটাল: প্রতিশ্রুতি মত চাকরি না মেলায় মুখ্যমন্ত্রী জেলায় থাকার সময় ধর্নায় বসলেন মৃত শ্রমিকদের পরিবার। ব্যানার প্ল্যাকার্ড হাতে পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ী বুলবুলি মোড় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক সংলগ্ন এলাকায় ধর্ণায় বসলেন মৃত পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিবার। মৃতের পরিবার যখন মালদা নালাগোলা রাজ্য সড়ক দিয়ে যাচ্ছিল সেই সময় পুলিশ তাদেরকে আটকে দেয়। এরপরই সেখানে ওই মৃতের পরিবার ব্যানার প্ল্যাকার্ড হাতে ধর্নায় বসে। এরপর পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ধর্না তোলা সম্ভব হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের উত্তরপ্রদেশের ভাদই এলাকায় কার্পেট কারখানায় বিস্ফোরণের ফলে মালদা জেলার মানিকচক থানার এনায়েতপুর গ্রামের ৯ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়। এরপর রাজ্য সরকারের তৎপরতায় মৃতদেহ মালদা জেলায় নিয়ে এসে সৎ কার্য করা হয়। ঘটনার খবর পেয়ে রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ওই গ্রামে আসে এবং তাদের হাতে আর্থিক অনুদান ও পরিবারের একজনকে আইসি ডি এসে চাকুরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

কিন্তু তিন বছর অতিক্রান্ত হলেও এখনো পর্যন্ত ওই পরিবারগুলিকে কোন চাকরি দেওয়া হয়নি। স্বাভাবিক ভাবেই ওই পরিবারগুলি আর্থিক দুর্দিন কাটাচ্ছেন। এমতো অবস্থায় বাধ্য হয়ে তারা বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকের আগেই মালদা নালাগোলা রাজ্য সড়কের মহানন্দা ভবনের পাশে চাকরির দাবি নিয়ে ব্যানার প্ল্যাকার্ড হাতে ধর্ণায় বসেন। সেই সময় ঘটনার খবর পেয়ে মালদা থানার পুলিশ তাদেরকে রাস্তায় আটকে দেয়। এরপর তারা রাজ্য সড়কের মাঝে ধর্নায় বসে।

যদিও পুলিশ প্রশাসনের প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর তারা ধর্না উঠিয়ে নেয়। মৃতের পরিবারের এক সদস্য সেতারা বিবি জানান,”আমার স্বামী পরিবারের একমাত্র রোজগার করত। মৃত্যুর পর তা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। মন্ত্রী সেই সময় আই সি ডি এসে চকুরীর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু বিভিন্ন জাগায় দ্বারস্থ হয়ে এখনো মেলেনি। তাই জেলায় মুখ্যমন্ত্রী এসেছে তাকে জানাতে বাধ্য হয়ে এই পথ বেছে নিয়েছি।

নিখিল বঙ্গ মহিলা সমিতির সদস্য তৃপ্তি পান্ডে জানান, তিন বছর অতিক্রান্ত হলেও মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি এখনো মানা হয়নি। যার ফলে পরিবারগুলির দুর্দশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। বাধ্য হয়ে এদিন মুখ্যমন্ত্রীকে জানানোর জন্যই তারা ব্যানার প্ল্যাকার্ড হাতে পথে নেমেছে। আমরা চাই অবিলম্বে তাদের চাকুরির ব্যবস্থা করা হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.